রাজনীতি

জটিল সংকটে নিপতিত দেশ! কখন কি হয় কেউ জানে না! নানা গুজব বাতাসে ভাসছে!

জটিল সংকটে নিপতিত দেশ! কখন কি হয় কেউ জানে না! নানা গুজব বাতাসে ভাসছে!

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে হঠাৎ দেশের বাইরে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে, মোটামুটি চুপিসারে !
………..ওআইসি’র প্রথম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্মেলনে যোগ দিতে শনিবার বিকেল পৌনে ৩টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কাজাখাস্তানের রাজধানী আস্তানার উদ্দেশে রওনা হন। ১২ তারিখে রাষ্ট্রপতির দেশে ফেরার কথা। এ খবরটি কেবল পরিবেশন করেছে বিডিনিউজ ২৪। প্রধান মিডিয়াগুলো এই খবর পরিবেশন করেনি। রহস্যজনক!

প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা দেশে থাকলেও সরকারী মিডিয়া প্রচার করেছে, তিনি কানাডা চলে গেছেন !
………..আগামী ১০ সেপ্টেম্বর থেকে প্রধান বিচারপতি দেশের বাইরে যাওয়াক কথা। একিটি সরকার আদেশ জারিও হয়েছে। কিন্তু ৮ সেপ্টেম্বর রাতে বাংলা নিউজ প্রথম খবর পরিবেশেন করে রাত ১০টার ইতেহাদ ফ্লাইটে কানাডা চলে গেছেন। বাংলা নিউজের তৈরী করা একই বানোয়াট খবর দেশের কয়েকটি পত্রিকা কপি করেছে। কিন্তু পরে জানা যায়, প্রধান বিচারপতি দেশেই আছেন। তদুপরি কেউ সংশোধনী দেয়নি। এটা বিপজ্জনক বিষয়!

হঠাৎ করে সংসদের বিশেষ অধিবেশন ডাকা হয়েছে, রহস্যজনক !
………..১০ সেপ্টেম্বর বিকালে সংসদের বিশেষ অধিবেশন যেকেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। সংসদের গত অধিবেশন শেষ হয়েছে ১৬ জুলাই, তারপরে এত দ্রুত অধিবেশন ডাকার কথা নয়। তবে কি কোনো সাংবিধানিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে দেশে? তাই এ বিশেষ এ নিয়ে দু’টি গুজব রটেছে- এক. প্রধান বিচারপতির গুষ্টি উদ্ধার করতে পারে, এমনকি সংবিধান সংশোধন করে (যদিও তার কোনো প্রয়োজন নেই) প্রধান বিচারপতি সিনহাকে অপসারন করবে আওয়ামীলীগ। দুই. কোনো বিশেষ অবস্থায় সংসদ ভেঙ্গে দেয়ার জন্য এই অধিবেশন ডাকা হয়েছে। রহস্য ঘেরা কারবার!

অজ্ঞাত কারনে আওয়ামী লীগ নির্বাহী কমিটির মিটিং করেছে !
………..এর মাঝখানে শাসক দল আওয়ামীলীগ গত ৭ তারিখ বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ করেই নির্বাহী কমিটির সভা করেছে গণভবনে। বিশেষ কোনো কারন ছাড়া এই সভা করাটা রাজনৈতিক মহলে চমক সৃষ্টি করেছে।

’সংবিধান লংঘন করে অন্য কিছু’র আভাস শেখ হাসিনা নিজেই দিয়েছেন !
………..গণভবনের নির্বাহী কমিটির সভায় শেখ হাসিনা নিজেই জানান দেন ’সংবিধান লংঘন করে অন্য কিছু’র জন্য তার উপর চাপ আছে। কিন্তু তিনি তা করতে চান না।

পতন ঠেকাতে বিদেশীদের কাছে সরকারের ধরণা !
………..শুক্রবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমামের সাথে তার গুলশানের বাসভবনে ৭/৮ জন প্রভাবশালী কূটনীতিকরা গোপন বৈঠক করে। ঐ বৈঠকে শেখ হাসিনার সরকারকে পূর্ন মেয়াদ পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে সময় দেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়। বিশেষ করে কারন হিসাবে জঙ্গিবাদ দমন ও রোহিঙ্গা সমস্যাকে উল্লেখ করা হয়।

এ পরিস্থিতিতে, প্রধান বিচারপতির বিদেশ যাওয়ার বানোয়াট গল্প প্রচার এবং একই সাথে ঠুনকো কারনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদকে কাজাখাস্তান পাঠিয়ে দেয়ায় ১০ তারিখ ঘিরে গুঞ্জন উঠেছে। তবে কি সেদিন বিশেষ কিছু ঘটছে বা কোনো কিছু এড়াতে রাষ্ট্রপতিকে সরিয়ে রাখা হলো?

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটির মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close